-->

পর্নোগ্রাফি দেখতে হলে এবার আগে মুখ দেখাতে হবে, নয়া প্রস্তাব!

অনলাইনে পর্নোগ্রাফি দেখলেই নাকি এবার মুখ দেখাতে হবে! মুখ না দেখালে খুলবেই না পর্ন সাইট। সরকারের এহেন প্রস্তাবে বিচলিত সকলেই। নেট দুনিয়ায় লাখো লাখো পর্নোগ্রাফির পসরা সাজিয়ে রাখে বিভিন্ন ওয়েবসাইট। এখানে এক নিমেষেই মোবাইল ফোনের স্ক্রিনে হাতছানি দেয় নীল ছবির দুনিয়া। কিন্তু সেই পর্ন দেখায় এবার কড়া বিধি-নিষেধের প্রস্তাবের নিয়ে ভাবছে সরকার। পর্নোগ্রাফি দেখতে হলে সবার আগে ‘ফেসিয়াল রেগনিশন সিস্টেম’-এর গণ্ডি পেরোতে হবে দর্শককে। অর্থাৎ কে পর্নোগ্রাফি দেখতে চাইছেন, তাঁর মুখ দেখাতে হবে আগে। এরপরই আপনি নীল ছবি দেখার সুযোগ পাবেন। সম্প্রতি এমন প্রস্তাবের কথাই ভেবেছে অস্ট্রেলিয়া সরকার, খবর ‘নিউ ইয়র্ক টাইমস’ সূত্রে।
কেন এমন ভাবনা?
জানা যাচ্ছে, নাবালকরা যাতে কোনওভাবেই পর্নোগ্রাফি দেখতে না পারে, তা নিশ্চিত করতেই এমন প্রস্তাবের কথা ভেবেছে ক্যাঙারুর দেশের সরকার। অধিকাংশ ক্ষেত্রেই দেখা যায়, ১৮ বছরের কমবয়সীরাও আজকের নেট দুনিয়ায় অনায়াসে নীল ছবি দেখার সুযোগ পায়। তা ঠেকাতেই এমন ভাবনা। বর্তমান আইন অনুযায়ী, অস্ট্রেলিয়ায় নাবালক-নাবালিকাদের পর্ন সাইট দেখা বারণ নয়। তবে আগামী দিনে যাতে বয়স নিশ্চিত করে তবেই নীল ছবি দেখার অনুমতি দেওয়া যায়, সে ব্যবস্থা করতেই এমন প্রস্তাব।
অস্ট্রেলিয়ার স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের এই প্রস্তাবে বলা হয়েছে, ইউজারের মুখের সঙ্গে তাঁর সরকারি নথিতে থাকা ছবি মিলিয়ে দেখা হবে। তবে অনলাইনে পর্নোগ্রাফি দেখার জন্য সংশ্লিষ্ট সাইট খোলার আগে কীভাবে নিজের মুখের ছবি তুলবেন ইউজার, সে সম্পর্কে এখনও কিছু জানানো হয়নি। তবে সরকারের এই প্রস্তাবে তুমুল প্রতিক্রিয়া দেখা গিয়েছে। সমালোচনায় মুখর হয়েছে বিরোধী দলগুলি। এখন দেখার শেষ পর্যন্ত এই প্রস্তাব সিলমোহর পড়ে কি না।

Baca juga

;